রোবটের দখলে যাবে প্রায় সব কাজ: মাস্ক

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনবিসি-এর সঙ্গে আলাপে মাস্ক জানান, এজন্য ভবিষ্যতে সরকারগুলোকে যেসব নাগরিক রোবটের কারণে কাজ হারিয়েছেন তাদের একটি সার্বজনীন ভাতা পরিশোধ করতে হবে।

“একটি ভালো সম্ভাবনা আছে যে আমরা একটি সার্বজনীন মৌলিক আয় বা এমন অন্য কিছু দেখতে পাব, আর এটিহবে স্বয়ংক্রিয়তার কারণে। হ্যাঁ, আমি নিশ্চিত নই কে এটি করবে। তবে আমি মনে করি এটি ঘটবে”, বলেন মাস্ক।

সার্বজনীন ভাতা দেওয়ার বিষয়টি নতুন নয়। চলতি বছর গ্রীষ্মে সুইজারল্যান্ড এই ধারণা বিবেচনা করে। দেশটিরভোটাররা এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে গেলেও, ভবিষ্যৎ স্বয়ংক্রিয়তা এ নিয়ে ঠিকই প্রশ্ন তোলে, জানিয়েছে ব্রিটিশট্যাবলয়েড মিরর।

২০১৪ সালে অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি একটি গবেষণা প্রকাশ করে। ওই গবেষণায় দাবি করা হয়, সামনের ২০বছরের মধ্যে যুক্তরাজ্যের ৩৫ শতাংশ কর্মস্থল রোবটের দখলে চলে যাওয়ার ঝুঁকি রয়েছে।

সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে থাকা কাজগুলোর মধ্যে রয়েছে অফিস ও প্রশাসনিক কাজে সহায়তা, বিক্রয় ও সেবাদান,যোগাযোগ, নির্মাণ আর উৎপাদন খাত। তবে, অ্যাপ ডেভেলাপার, সামাজিক মাধ্যম বিশেষজ্ঞ, ডেটা বিজ্ঞানী, ক্লাউডসেবা বিশেষজ্ঞদের কাজ বাড়বে বলেও মত মাস্ক-এর। 

মাস্ক বলেন, “মানুষ আরও অন্য কিছু করার সময় পাবে, আরও জটিল কিছু, আরও আকর্ষণীয় কিছু। নিশ্চিতভাবেঅনেক অবসর পাবে।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *